মূল Spirituality (আধ্যাত্মিকতা টিপস) আপনি কি সোমবার জন্ম নিয়েছেন? তাহলে এই লেখাটি না পাড়লে কিন্তু ভুল...

আপনি কি সোমবার জন্ম নিয়েছেন? তাহলে এই লেখাটি না পাড়লে কিন্তু ভুল করবেন!

আপনি কি সোমবার জন্ম নিয়েছেন? তাহলে এই লেখাটি না পাড়লে কিন্তু ভুল করবেন!

বৈদিক অ্যাস্ট্রোলিজর উপর লেখা একাধিক বইয়ে এমনটা দাবি করা হয়েছে যে সপ্তাহের এক একটা দিনে এক একটা গ্রহের প্রভাব খুব বেশি মাত্রায় থাকে। তাই তো যেদিন যে জন্মেছেন, সেই দিন অনুসারে তার উপর কোনও না কোনও গ্রহ বা নক্ষত্রের ব্যাপক প্রভাব পরে। আর এই কারণে অনেক সময় যেমন নানাবিধ উপকার পাওয়া যায়, তেমনি কোনও কোনও সময় নানা বিপদ মাথা চাড়া দিয়ে ওঠার সম্ভাবনাও থাকে। আর এমনটা হলে তখন নানাবিধ অ্যাস্ট্রোলজিকাল রেমিডির উপর ভরসা রাখা ছাড়া আর কোনও উপায় থাকে না। তাই তো বলি বন্ধু, আপনি যেদিন জন্মেছেন, সেই দিনটির হিসেবে কোন গ্রহের প্রভাব আপনার উপর বেশি মাত্রায় পরবে এবং সে কারণে উপকার মিলবে না অপকার সে সম্পর্কে জেনে নেওয়াটা একান্ত প্রয়োজন।

আজ এই লেখায় সোমবার যারা জন্মেছেন তাদের চরিত্র এবং কর্মজীবনের উপর যেমন আলোকপাত করার চেষ্টা করা হবে, তেমনি তাদের বৈবাহিক জীবন এবং আরও নানা বিষয় সম্পর্কে জেনে নেওয়ার চেষ্টা করা হবে। তাই তো বলি বন্ধু, আপনাদের মধ্যে যারা সোমবার জন্মেছেন, তারা নিজেদের সম্পর্কে যদি নানা অজানা কিছু জেনে নিতে চান, তাহলে এই লেখায় একবার চোখ রাখতে ভুলবেন না যেন!

সোমাবার এবং চাঁদ:

সোমাবার এবং চাঁদ:

জ্যোতিষ বিশেষজ্ঞদের মতে যারা সোমাবার জন্ম গ্রহণ করেছেন তাদের উপর চাঁদের প্রভাব খুব বেশি মাত্রায় থাকে। তাই তো এরা খুব ভাল মনের মানুষ হন। সেই সঙ্গে এমন মানুষেরা সৎ, পজেসিভ এবং কেয়ারিং মানসিকতারও হয়ে থাকেন। শুধু তাই নয়, এদের চরিত্রের আরেকটি ভাল দিক হল এরা যে কোনও পরিস্থিতিতে মানিয়ে নিতে পারেন। তাই তো কোনও পরিস্থিতিতেই এদের খুব একটা কঠিন সময়ের সম্মুখিন হতে হয় না। তবে একটা জিনিস মাথায় রাখতে হবে। তা হল সময়ের সঙ্গে সঙ্গে চাঁদের অবস্থানে যেমন যেমন পরিবর্তন আসে, সেই মতো এদের উপরও কিন্তু নানা প্রভাব পরে থাকে এবং সেই প্রভাব খারাপ-ভাল যা কিছু হতে পারে! আর ঠিক এই কারণে কোনও কোনও সময় মানসিক আশান্তি মাথা চাড়া দেয় তো কোনও কোনও সময় মন অফুরন্ত আনন্দে ভরে ওঠে।

এদের চরিত্র কেমন হয়?

এদের চরিত্র কেমন হয়?

অ্যাস্ট্রোলজিতে চাঁদের গুরুত্ব অনেক। কারণ এর প্রভাবে অনেকে যেমন হাতে চাঁদ পান, তেমনি অনেকের খারাপ সময় আসতেও সময় লাগে না। শুধু তাই নয়, কে কেমন চরিত্রের হবেন, তাও অনেকাংশে চাঁদের প্রভাবের উপরই নির্ভর করে থকে। যেমন ধরুন সোমবার যারা জন্মেছেন, তদের উপর স্বাভাবিকভাবেই চাঁদের প্রভাব খুব বেশি মাত্রায় থাকে। আর এই কারণে এরা খুব মা ভক্ত হন। শুধু তাই নয়, নিজের বাড়িতে, প্রিয় মানুষদের সঙ্গে সময় কাটাতেই এমন মানুষেরা বেশি পছন্দ করেন। শুধু তাই নয়, এমন মানুষেরা নিজের মনের কথা শুনে সিদ্ধান্ত নিতেই বেশি পছন্দ করেন। প্রসঙ্গত, সোমবার যারা জন্মেছেন তাদের লাকি নম্বর হল ২ এবং এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে এরা যদি নিয়মিত শিব ঠাকুর এবং গণেশ ঠাকুরের অরাধনা করতে পারেন, তাহলে দারুন সব উপকার মিলতে নাতি একেবারেই সময় লাগে না।

সোমবার যারা জন্মেছেন তাদের কেরিয়ার কেমন হয়:

সোমবার যারা জন্মেছেন তাদের কেরিয়ার কেমন হয়:

এরা যেমন মনোযোগী, তেমনি বেজায় কর্মঠও বটে। তাই ব্যবসা ক্ষেত্রে এদের সফলতা লাভের সম্ভাবনা বেশি থাকে। শুধু তাই নয়, স্কিলফুল যে কোনও কাজেই এদের তুমুল উন্নতি লাভের সম্ভাবনা রয়েছে। তাই তো বলি বন্ধু, আপনি যদি সোমবার জন্ম নিয়ে থাকেন, তাহলে নিজের উপর ভরসা রেখে যে কোনও ব্যবসা শুরু করতে দেরি করবেন না যেন! এমনটা যদি করতে পারেন, তাহলে দেখবেন দ্রুত উন্নতির সিঁড়ি চড়তে কেউ আপনাকে আটকাতেই পারবে না।

লাভ লাইফ কেমন হয় এদের:

লাভ লাইফ কেমন হয় এদের:

আপনারা বেজায় কেয়ারিং মানসিকতার হন। তাই তো একবার যাকে ভালবেসে ফেলেন তার হাত কোনও পরিস্থিতিতেই ছাড়েন না। এমনকি নিজের থেকে বেশি অন্যের কথা ভাবতে আপনারা ভালোবাসেন। শুধু তাই নয়, প্রিয় মানুষদের সঙ্গে ঘন্টার পর ঘন্টা সময় কাটাতে আপনাদের বেশ লাগে। তবে একটাই চিন্তার বিষয়। তা হল আপনারা আগে-পিছু না ভেবে-চিন্তেই কাউকে মন দিয়ে বসেন। ফলে ভালোবাসায় দুঃখ পাওয়ার সম্ভাবনা আপনাদের মতো মানুষদের বেশি থাকে। প্রসঙ্গত, আরেকটি বিষযের উপর আপনাদের নজর দেওয়াটা একান্ত প্রয়োজন। কী বিষয়? আপনারা আপনাদের ভালোবাসার মানুষদের থেকে নানা বিষয়ে একটু বেশি মাত্রায় আশা করে থাকেন। এমনটা হওয়া একেবারেই উচিত নয়। কারণ এক্সপেক্টেশন ভাল। কিন্তু তা মাত্রা ছাড়ালে অশান্তি বাড়ার সম্ভাবনাও থাকে কিন্তু! তাই এই বিষয়টির দিকে নজর রাখতে ভুলবেন না যেন!

বৈবাহিক জীবন:

বৈবাহিক জীবন:

সোমবার যারা জন্ম গ্রহণ করেছেন, তারা মন থেকে খুব ভাল হন। শুধু তাই নয়, যেমনটা আগেও আলোচনা করা হয়েছে যে এমন মানুষেরা নিজের জীবনসঙ্গীকে মন-প্রাণ দিয়ে ভালোবাসেন। এমনকি যে কোনও পরিস্থিতিতে মানিয়ে নিয়ে ভালবাসার মানুষদের আনন্দে রাখতে এরা কোনও খামতিই রাখেন না। তাই এক কথায় বলা যেতে পারেই যে এমন মানুষদের জীবনসঙ্গী হিসেবে যারা পাবেন, তাদের ভাগ্য ফিরে যাবে। কিন্তু একটা বিষয় আপনাদের খেয়াল রাখতে হবে। তা হল চাঁদের প্রভাব বেশি থাকার কারণে আপনারা খুব অল্পতেই কষ্ট পয়ে যান। কি তাই তো? কিন্তু এমনটা হলে কিন্তু চিন্তার বিষয়। কারণ বৈবাহিক জীবন যে সব সময় আনন্দে কাটবে এমন নয়। কোনও কোনও সময় খারাপ সময়ও আসতে পারে। তাই অল্পতেই দুঃখ পেতে শুরু করলে কঠিন পরিস্থিতি সম্পর্ককে টিকিয়ে রাখাটা কিন্তু কঠিন হয়ে যাবে বন্ধু! প্রসঙ্গত, আরেকটি বিষয়ও মাথায় রাখতে হবে আপনাদের। তা হল খেয়াল করে দেখলে বুঝবেন আপনি আপনার ভাসোবাসার মানুষটির প্রতি বেজায় পজেসিভ। এননটা হওয়াও কিন্তু একেবারেই উচিত নয়।

চাঁদকে শক্তিশালী করতে:

চাঁদকে শক্তিশালী করতে:

কোনও কারণে কোনও দিন যদি আপনার জন্ম কুষ্টিতে চাঁদের অবস্থান দুর্বল হয়ে পরে বা চাঁদের প্রভাবে খারাপ সব ঘটনা ঘটতে শুরু করে, তাহলে বেশ কিছু নিয়ম মেনে চলতে ভুলবেন না যেন! যেমন ধরুন, চাঁদের খারাপ প্রভাব যখন রয়েছে, তখন নানাবিধ বিপদ এড়াতে ঠান্ডা খাবার একেবারে খাবেন না। এড়িয়ে চলার চেষ্টা করবেন প্যাকেটজাত খাবারও। পরিবর্তে রোজের ডায়েটে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে বেশি করে ফল এবং সবজিকে। কারণ এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে এই ধরনের খাবার বেশি করে খেলে শরীর এবং মনের উপর চাঁদের খারাপ প্রভাব পরার আশঙ্কা একেবারে কমে যায়। প্রসঙ্গত, এই সময় আরও কতগুলি বিষয় মাথায় রাখতে হবে। যেমন ধরুন- ভুলেও জলের অসম্মান করা চলবে না এবং কোনও নদীতে স্নান করতে যাওয়ার সময় প্রথমে নদীর জল অল্প করে হাতে নিয়ে মাথায় ছুঁইয়ে তারপর পায়ে লাগাতে হবে। প্রসঙ্গত, এই সময় মায়ের শরীরের দিকে খেয়াল রাখতেও ভুলবেন না যেন! কারণ আপনার উপর থাকা ছাঁদের খারাপ প্রভাবে কিন্তু অনেক সময় আপনার মায়ের নানাবিধ শারীরিক ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা থাকে।

আপনি কি সোমবার জন্ম নিয়েছেন? তাহলে এই লেখাটি না পাড়লে কিন্তু ভুল করবেন!

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here