মূল Health (বাংলা স্বাস্থ্য টিপস) Health Tips সাফি সিরাপ খেলে কি চুলের কোন খতি হয় আর এটি খেলে কি...

সাফি সিরাপ খেলে কি চুলের কোন খতি হয় আর এটি খেলে কি চেহারা সুন্দর হয়?

সাফি সিরাপ খেলে কি চুলের কোন খতি হয় আর এটি খেলে কি চেহারা সুন্দর হয়।?

সাফি সিরাপ খেলে কি চুলের কোন খতি হয় আর এটি খেলে কি চেহারা সুন্দর হয়।?

প্রশ্ন: হামদর্দ এর ওষুধ (medicine) সাফি খেলে কি কি উপকার পাওয়া যায়? এর কি কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আছে?

উত্তর: আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। গ্রাহক এটি একটি ইউনানি বা Herbal মেডিসিন এর সম্নধে আমাদের ধারনা নেই।আপনি এর জন্য Herbal বিশেষজ্ঞ এর পরামর্শ নিন।ব্রন (acne)আপনার খাদ্য এবং ত্বক ও শরীরের সামগ্রিক যত্ন সাথে সম্পর্কিত ।আপনার যদি অনেক ব্রন (acne) হয় তাহলে চর্বিযুক্ত খাদ্য এবং দুগ্ধ পণ্য খাওয়া এড়াতে হবে। এছাড়াও চকলেট না খাওয়া ভাল। নিয়মিত অনেক পানি (water) পান করুন(৮ গ্লাস প্রত্যেকের জন্য নূন্যতম প্রয়োজন হয়) এবং সম্ভব হলে ডাবের পানি(water) খাবেন। একটি তুলো ডাবের পানি(water) তে ভিজিয়ে আপনার মুখটা মুছে নিন, প্রতিদিন (everyday)সকালে বা গোসল এর আগে। এটি প্রাকৃতিকভাবে ব্রন (acne) সম্পর্কিত দাগ দূর করতে সাহায্য করে। যদি সম্ভব হয়, নিম পাতা এবং তাজা কাঁচা হলুদ এবং কালো জিরা মিশিয়ে প্রতিদিন (everyday) সকালে খুব অল্প পরিমান এ খাবেন । এছাড়াও constipation ও হজমের সমস্যার ফলে ব্রন (acne) হতে পারে। নিম, কাঁচা হলুদ ও কালো জিরা আপনার পেট এর জন্য খুব ভাল এবং আপনার পরিপাকতন্ত্র কে পরিষ্কার রাখবে । নিয়মিত ব্যায়াম করলে আপনার ত্বক এর ছিদ্র গুলো খুলে যাবে এবং আপনার রক্তচলাচল বেরে যাবে। তবে ঘেমে গেলে আবার ত্বক এ ময়লা জমতে পারে তাই এক্সারসাইজ এর পর গোসল করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। গ্রাহক আপনার কি পর্যাপ্ত ঘুম হয়? ঘুম ঠিক মত না হলে ব্রন (acne)দেখা দিতে পারে। তবে জেনে রাখা ভাল যে ঔষধ স্বল্পমেয়াদী সাহায্য করতে পারে,তবে যদি একটি দীর্ঘমেয়াদী সমাধান চান তাহলে আপনার জীবনধারা পরিবর্তনের চেষ্টা করুন। গ্রাহক,আপনার বয়স কত?ছেলে না মেয়ে? কিছু বেসিক নিয়ম মেনে চলুন । সেগুলো হলো: ১) নিয়মিত ৮-১০ গ্লাস পানি (water)পান করা ২) নিয়মিত পর্যাপ্ত ঘুমানো ৩) সপ্তাহে অন্তত ১ বার আপনার তোয়ালে, বিছানা চাদর, বালিশের কভার, চিরুনি, মেকাপ ব্রাশ- এধরণের জিনিসগুলো ধুয়ে দিন ৪) অবশ্যই নিয়মিত ত্বক এবং মাথার ত্বক পরিষ্কার করবেন। মাথার ত্বক ময়লা থাকলেও ব্রণ হয় ৫) যদি কিছু নিয়ে দুশ্চিন্তায় থাকেন তবে সেটা কমানোর চেষ্টা করা ৬) কোষ্ঠকাঠিন্য থাকলে সেটা দূর করা।

হামদর্দ (ওয়াক্‌ফ) ল্যাবরেটরীজ ইউনানি এবং আয়ুর্বেদিক ঔষধের জন্য ভারত উপমহাদেশের একটি বিখ্যাত ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি। হামদর্দ পৃথিবীর বৃহত্তম ইউনানি ঔষধের প্রস্তুতকারক। হামদর্দের বিভিন্ন ২২ টি পণ্যের মধ্যে সাফি, শরবত রূহ আফজা, সিঙ্কারা, রোগান বাদাম শিরিন এবং পাচনল বেশ বিখ্যাত। বর্তমানে বাংলাদেশে হামদর্দ হারবাল ওষুধ(medicine) শিল্পে পরিচিত একটি নাম। আমার জানামতে সাফির কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। হামদর্দের সাফি ওষুধটি (medicine) খাওয়ার নিয়মাবলী প্যাকেটের গায়েই লেখা আছে। সেখান থেকেই আপনি জানতে পারবেন এটা কিভাবে, কখন খাবেন। প্রতিটি হামদর্দ এর ফার্মাসিতে একজন করে সংশ্লিষ্ট বিষয়ক চিকিৎসক বসে থাকেন। আপনি তার সাথে সরাসরি যোগাযোগ করে প্রয়োজনীয় পরামর্শ নিন। সাফি ওষুধটি (medicine) খাওয়ার আগে না পরে খাবেন তা প্যাকেটের গায়েই লেখা থাকার কথা। হামদার্দের সাফি খেলে আপনার মুখের ব্রণ কমে আসবে। তবে এটি নিয়ম করে প্রতিদিনই (everyday)খেতে হবে।

প্রশ্ন: ২ দিন পার হয়ে গেলো কিন্তু মাসিক হচ্ছে না, নিয়মত করার কি কোন ওষুধ আছে?

প্রশ্ন: Girl friend এর সাথে তার মাসিক (period) হবার নিয়মিত তারিখ ২২…তার মাসিক শেষ হবার ৪ দিন পর ২৬ তারিখ ১.৩০ এর দিকে সেক্স করেছি…প্রায় ২৭ ঘন্টা পর সে পিল খেয়েছিল…এখন তার মাসিকের তারিখ ২৪ হয়ে গেছে …২ দিন পার হয়ে গেলো কিন্তু তার মাসিক (period) হলো না…সে অনেক ভয় পাচ্ছে আর কান্নাকাটি করছে…এখন তার মাসিক করানোর জন্য কি উপায় আছে …তার সাথে প্রথমবার সেক্স করা এখনও ১ মাস হয়নাই …২৬ তারিখ ১ মাস হবে …এখন কি করব প্লিজ একটু জানান.

উত্তর: অনিয়মিত মাসিকের সমস্যা যে কোন বয়সের নারীদের মাঝেই দেখা যেতে পারে। বিশেষ করে যারা অবিবাহিত, তাঁদের মাঝে বেশি দেখা যায় এই অনিয়মিত পিরিয়ডের (period) সমস্যা। অনিয়মিত পিরিয়ডের (period) কারণে সন্তান ধারণে সমস্যা হতে পারে। অনিয়মিত মাসিক নিয়মিত করার ২টি দারুণ ঘরোয়া চিকিৎসা। দুটোর মাঝে যে কোন একটি পালন করুন মাত্র ১ মাস। আশা করি সমস্যা ‍দূর হবে। ১। আদার ব্যবহারঃ বহু গুণের এই আদা কেবল সর্দি কাশি সারাতেই কাজে লাগে না, পিরিয়ডকে (period) নিয়মিত করতেও এর জুড়ি নেই। কীভাবে ব্যবহার করবেন এই আদা? – ১ কাপ পানি নিন। এতে ১ চা চামচ মিহি আদা কুচি ৫ থেকে ৭ মিনিট ফুটিয়ে নিন। – সামান্য চিনি বা মধু যোগ করুন। – এই পানীয়টি পান করুন দিনে ৩ বার, খাবার খাওয়ার পর। – ১ মাস নিয়মিত পান করুন, পিরিয়ড (period) নিয়মিত হয়ে যাবে নিশ্চিত। ২।দারুচিনিঃ – পিরিয়ডকে (period) নিয়মিত করতে দারুচিনি আরেকটি দারুণ কার্যকরী উপাদান। এই দারুচিনি ব্যবহার করে পিরিয়ড (period) জনিত ব্যথা হতেও মুক্তি পেতে পারবেন আপনি। কীভাবে ব্যবহার করবেন? – আধা চামচ দারুচিনি গুঁড়ো যোগ করুন এক গ্লাস দুধে। সাথে দিতে পারেন মধু। এই মিশ্রণ পান করুন ৪ থেকে ৫ সপ্তাহ। পিরিয়ড Period নিয়ে সমস্যা কেটে যাবে। – পান করতে পারেন দারুচিনি চা, দৈনিক এক টুকরো দারুচিনি চিবালেও কাজে দেবে। তবে খেয়াল রাখবেন, দারুচিনি যেন হয় খাঁটি। বি:দ্র: বিবাহের আগে মিলন না করাই ভালো।

মাসিক হবার কত দিন (day)আগে বা পড়ে কনডম ছাড়া মিলন করা নিরাপদ?

মাসিকের (period) সময়ে শারীরিক মিলন (physical relation) করলে গর্ভধারনের (pregnant) সম্ভাবনা থাকে না, তবে এই সময়ে শারীরিক মিলন (physical relation) (physical relation) থেকে বিরত থাকাই ভালো। বৈজ্ঞানিক ভিত্তিতে জানা যায় মাসিক (period)হওয়ার ৭ দিন (day)আগে ও পরের সময়ে শারীরিক মিলন (physical relation) করলে গর্ভ ধারণের সম্ভাবনা কম থাকে এবং এর মাঝামাঝি সময়গুলোতে গর্ভ ধারণের (pregnant)সমূহ সম্ভাবনা থাকে।

নিয়মিত সাস্থ্য টিপস বিষয়ক ভিডিও পেতে নিচের ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রইব করে রাখুন

জন্মনিয়ন্ত্রণের (birth control) জন্য সকলেই গর্ভনিরোধক ট্যাবলেট কিংবা কন্ডোমের উপরই ভরসা করেন৷ কিন্তু, আধুনিক পদ্ধতি ছাড়াই সম্পূর্ণ প্রাকৃতিকভাবেজন্ম নিয়ন্ত্রণ করা যেতে পারে৷ এই সম্পর্কে ধারনা থাকলে চিকিৎসকেরা কাছেও যাওয়ার প্রযোজন পড়ে না৷ মহিলাদের স্বাভাবিক ঋতুচক্র (periodপ্রাকৃতিকভাবে নির্ধারিত৷ এতে এমন কিছুদিন (day)রয়েছে, যাকে নিরাপদ দিন বা সেফ পিরিয়ড বলা হয়৷ এই দিনগুলিতে সহবাস (physical relation) করলেও গর্ভধারণের ঝুঁকি থাকে না৷ সেফ পিরিয়ডের দিনগুলিও প্রকৃতিগতভাবে নির্দিষ্ট৷ এই কারণেই একে প্রাকৃতিক পরিবার পরিকল্পনা বলা যেতেই পারে৷ চিকিৎসকেরা এতে অনেক সময় ক্যালেন্ডার পদ্ধতিও বলে থাকেন৷ এই পদ্ধতি কার্যকর করতে অবশ্যই জানা দরকার ঋতুচক্রের (period নিরাপদ দিন কোনগুলি৷

এই পদ্ধতির জন্য সবার আগে জানতে হবে মাসিক (period)ঋতুচক্র(period নিয়মিত হয় কিনা৷ হলে তা কত দিন অন্তর হয়৷ সবচেয়ে কম যত দিন পর পর মাসিক হয়, তা থেকে ১৮ দিন বাদ দিতে হবে৷ পিরিয়ড শুরুর প্রথম দিন (day) থেকে এই দিনটিই হল প্রথম অনিরাপদ দিন৷ আবার সবচেয়ে বেশি যতদিন পরপর পিরিয়ড হয়, তা থেকে ১০ দিন বাদ দিলে মাসিক শুরুর প্রথম দিন (day)থেকে এই দিনটিই হল শেষ অনিরাপদ দিন৷
ধরু আপনার পিরিয়ড ২৮ থেকে ২০ দিন (day) অন্তর হয়৷ তবে ২৮-১৮= ১০, অর্থাৎ পিরিয়ড শুরুর পর থেকে প্রায় নয় দিন আপনার জন্য নিরাপদ, এই দিনগুলিতে কোন পদ্ধতি ব্যবহার না করেও সহবাস (physical relation) অনায়াসেই করা সম্ভব৷ ১০ নম্বর দিন থেকে অনিরাপদ দিন শুরু৷ তাই এই দিন থেকে সহবাসে সংযত হতে হবে৷

৩০ দিন হল দীর্ঘতম মাসিকচক্র৷(period) তাই ৩০-১০= ২০, অর্থাৎ ২০ নম্বর দিনটিই হল শেষ অনিরাপদ দিন (day)৷ ২১তম দিন থেকে আবার অবাধে সহবাস (physical relation) করা যেতে পারে৷ এতে গর্ভধারণের সম্ভাবনা নেই৷ তবে, এতে ১০ থেকে ২০ দিনের মধ্যে অবাধ সহবাসের (physical relation) ফলে গর্ভধারন হতে পারে৷

এই বিষয়েটি সহজভাবে বোঝালে পিরিয়ড শুরুর প্রথম সাতদিন ও শেষের প্রথম সাতদিন সহবাস (physical relation) করা নিরাপদ৷ তবে, পিরিয়ড নিয়মিত না হলে এই পদ্ধতি কার্যকর হবে না৷ এছাড়াও প্রাকৃতিক জন্মনিয়ন্ত্রণ ৮০ শতাংশ নিরাপদ৷ সাধারণত, পিরিয়ডের হিসেবে গন্ডগোল, অনিরাপদ দিবসে সহবাস, অনুমিত পিরিয়ডের ফলে প্রাকৃতির গর্ভনিরোধকের পদ্ধতি ব্যর্থ হতে পারে৷ তাই, সঠিকভাবে জানতে একবার অন্তত চিকিৎসকেরা পরামর্শ নেওয়া প্রয়োজন৷

আবার কিছু পুরুষের শুক্রাণুর আয়ু বেশি হওয়ায় তারা এতে সাফল্য নাও পেতে পারেন৷ সেক্ষেত্রে অনুরাপদ দিবসে দুই দিন বাড়িয়ে নেওয়া প্রয়োজন৷ একে অনেকে প্রোগ্রামড সেক্স বলে৷ অনেকেই এ বিষয়ে সংশয় পোষণ করেন, কিন্তু একবার এই পদ্ধতিতে অভ্যস্ত হয়ে গেলে এটি অনেক বেশি সহজ ও আরামদায়ক৷ সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল এতে কোন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নেই৷

জন্ম নিয়ন্ত্রণ পিল কতো দিন (day) পর কনডম ছাড়া নিরাপদ সহবাস (physical relation) করা যাবে মানে মোট কতোটা পিল খাওয়া পর থেকে সহবাস (physical relation) করলে নিরাপদ হবে..?

জন্মনিয়ন্ত্রন পিল প্রতিদিন খেতে হয় নতুবা কাজ হবেনা।

কতটা পিল ও কাজ হবেনা, দৈনিক একটা করে ফেমিকন খেতে হবে, মাসিক(period) শুরুর দ্বিতীয় দিন (day) থেকে।

পিল যেদিন থেকে খাওয়া শুরু হবে সেদিন (day)থেকেই কনডম ছাড়া যৌন মিলন নিরাপদ।যতদিন পর্যন্ত বাবু নিতে না চান।

মাসিক চলাকালিন সেক্স করা কি নিরাপদ কনডম / পিল ছাড়া? শুনিছি মাসিক (period)চলাকালিন সেক্স করা ঝুকি আর নাকি মাসিক শেষ হওয়ার দিন থেকে শুরু করে ১৩দিন (day)পর সেক্স করা নিরাপদ কোনটা সঠিক বলেন প্লিস?

আপনি যা শুনেছেন সম্পূর্ণ ভূল । মাসিক(period) শুরু হওয়ার দিন থেকে আগের সাত দিন এবং মাসিক শুরুর দিন থেকে পরের দিন (day) হলো মিলনের নিরাপদ সময় ।। এসময় কনডম/পিল ছাড়া মিলন করলে আপনার স্ত্রী গর্ভবতী (pregnant)হবেন না । আর মাসিকের অষ্টম দিন থেকে একুশ দিন পর্যন্ত সময়টা অনিরাপদ । এসময় অরক্ষিত মিলনে গর্ভবতী (pregnant) হওয়ার সম্ভাবনা আছে । আশা করি বুঝতে পেরেছেন ।

সাফি সিরাপ খেলে কি চুলের কোন খতি হয় আর এটি খেলে কি চেহারা সুন্দর হয়?

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here