মূল Spirituality (আধ্যাত্মিকতা টিপস) জ্যোতিষশাস্ত্র মতে এই গাছগুলির পুজো করলে নানাবিধ সমস্যা মিটে যেতে একেবারেই সময়...

জ্যোতিষশাস্ত্র মতে এই গাছগুলির পুজো করলে নানাবিধ সমস্যা মিটে যেতে একেবারেই সময় লাগে না!

জ্যোতিষশাস্ত্র মতে এই গাছগুলির পুজো করলে নানাবিধ সমস্যা মিটে যেতে একেবারেই সময় লাগে না!

জানি বন্ধু জানি শুনতে আজব লাগছে কথাটা, তাই তো? কিন্তু বিশ্বাস করা ছাড়া কোনও উপায়া নেই! কারণ বৈদিক অ্যাস্ট্রোলজির উপর লেখা একাধিক বইয়ে এমনটা দাবি করা হয়েছে যে বিশেষ কিছু গাছের সঙ্গে জ্যোতিষ শাস্ত্রের যেমন গভীর সম্পর্ক রয়েছে, তেমনি হিন্দু ধর্মও মান্যতা দিয়েছে এই প্রবন্ধে আলোচিত গাছগুলিকে।

বিশেষজ্ঞদের মতে জ্যোতিষ শাস্ত্রে উল্লেখিত নানাবিধ গ্রহ এবং নক্ষত্রের সঙ্গে এই সব গাছগুলির যোগ রয়েছে। তাই তো নির্দিষ্ট নিয়ম মেনে এই গাছগুলির পুজো শুরু করলে জন্মকুষ্টিতে নানাবিধ গ্রহের অবস্থান শক্তিশালী হয়ে উঠতে সময় লাগে না। ফলে নানাবিধ উপকার যেমন পাওয়া যায়, তেমনি কোনও ধরনের বিপদ ঘটার বা ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কাও হ্রাস পায়। শুধু তাই নয়, আরও নানা উপকার পাওয়া যায়, যে সম্পর্কে এই প্রবন্ধে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে। তাই তো বলি বন্ধু, বাকি জীবনটা যদি সুখে-শান্তিতে এবং নিরাপদে কাটাতে হয়, তাহলে এই লেখাটা পড়তে দেরি করবেন না যেন!

এখন প্রশ্ন হল কোন কোন গাছের পুজো করতে হবে এবং এমনটা করলে কী কী উপকার মিলবে?

১. কলা গাছ:

১. কলা গাছ:

জ্যোতিষ বিশেষজ্ঞদের মতে কলা গাছ হল ভগবান বিষ্ণুর প্রতীক। তাই তো প্রতি বৃহস্পতিবার কলা গাছের পুজো করলে সর্বশক্তিমান এতটাই প্রসন্ন হন যে তাঁর আশীর্বাদে টাকা-পয়সা সংক্রান্ত নানা সমস্যা মিটে যেতে যেমন সময় লাগে না, তেমনি আরও নানাবিধ উপকার পাওয়া যায়। যেমন ধরুন- পরিবারে সুখ-সমৃদ্ধির ছোঁয়া লাগে, বৈবাহিক জীবন সুখে-শান্তিতে কাটে, মঙ্গল দোষ কেটে যায়, কর্মজীবনে উন্নতির পথ প্রশস্ত হয় এবং কোনও ধরনের বিপদ ঘটার আশঙ্কা যায় কমে। তবে এখানেই শেষ নয়। এমনটাও বিশ্বাস করা হয় যে বৃহস্পতিবার করে কলা গাছের পুজোর আয়োজন করলে জন্ম কুষ্টিতে বৃহস্পতি গ্রহের খারাপ প্রভাব কেটে যেতে সময় লাগে না। প্রসঙ্গত, বিশেষজ্ঞদের মতে কলা গাছের মূল, হলুদ সুতোয় বেঁধে লকেট হিসেবে পরলেও কিন্তু একই উপকার পাওয়া যায়। তাই বৃহস্পতিবার করে যদি কলা গাছের পুজো করার সময় না পান, তাহলে এই টোটকাটিকেও কাজে লাগাতে পারেন।

২. আম গাছ:

২. আম গাছ:

যে কোনও পুজো বা শুভ কাজে আম পল্লবের ব্যবহার তো বহু কাল ধরেই চলে আসছে। কিন্তু একথা জানা আছে কি বাড়ির সদর দরজায় ১১ টি আম পাতা বেঁধে ঝোলালে কি উপকার মিলতে পারে? বাস্তু বিশেষজ্ঞদের মতে এমনটা করলে গৃহস্থের অন্দরে খারাপ শক্তির প্রবেশ একবারে আটকে যায়। সেই সঙ্গে কালো যাদুর প্রভাবও কাটতে শুরু করে। ফলে কোনও ধরনের বিপদ ঘটার আশঙ্কা যেমন কমে, তেমনি পরিবারের অন্দরে কোনও ধরনের ঝামেলা মাথা চাড়া দিয়ে ওঠার সম্ভাবনাও আর থাকে না। তবে এখানেই শেষ নয়, ফেংশুই শাস্ত্র অনুসারে বাড়িতে আম গাছ পুঁতলে খারাপ সময় কেটে যায়। ফলে গুড লাক রোজের সঙ্গী হয়ে ওঠে। আর এমনটা হলে মনের ছোট থেকে ছোটতর ইচ্ছা পূরণ হতে যে সময় লাগে না, তা তো বলাই বাহুল্য!

৩. তুলসি গাছ:

৩. তুলসি গাছ:

শাস্ত্র মতে নিয়মিত তুলসি গাছে জল দান করে ঘিয়ের প্রদীপ জ্বালালে মা তুলসি তো প্রসন্ন হনই, সেই সঙ্গে ভগবান বিষ্ণু বেজায় খুশি হন। ফলে তাঁদের আশীর্বাদে বাড়িতে খারাপ শক্তির প্রভাব কমতে সময় লাগে না। সেই সঙ্গে বাড়িতে সুখ-শান্তি বজায় থাকে, বৈবাহিক জীবন আনন্দে কেটে যায় এবং মানসিক অশান্তি দূরে পালাতে সময় লাগে না। ফলে জীবনের প্রতিটা দিন এতটাই আনন্দে কেটে যায় যে দুঃখ ধারে কাছেও ঘেঁষতে পারে না। প্রসঙ্গত, এমনটাও অনেকে মনে করেন যে বাড়িতে তুলসি গাছ রাখলে গৃহস্থের পরিবেশ এতটাই শুদ্ধ হয়ে ওঠে যে ছোট-বড় কোনও রোগ-ব্য়াধিই ধারে কাছে ঘেঁষতে পারে না।

৪. মানি প্লান্ট:

৪. মানি প্লান্ট:

বাস্তু বিশেষজ্ঞদের মতে বাড়িতে মানি প্ল্য়ান্ট গাছ রাখলে অর্থনৈতিক উন্নতির পথ প্রশস্ত হয়। সেই সঙ্গে টাকা-পয়সা সংক্রান্ত নানা ঝামেলা মিটে যেতেও সময় লাগে না। শুধু তাই নয়, এমনটাও বিশ্বাস করা হয় যে এই গাছটি বাড়িতে রাখলে খারাপ সময় কেটে গিয়ে গুড লাক রোজের সঙ্গী হয়ে ওঠে। ফলে মনের মণিকোঠায় সাজানো ছোট-বড় সব ইচ্ছা পূরণ হতে সময় লাগে না। তাই তো বলি বন্ধু, অল্প সময়েই যদি অনেক অনেক টাকার মালিক হয়ে উঠতে চান, তাহলে বাড়িতে একটা মানি প্লান্ট গাছ নিয়ে আসতে দেরি করবেন না যেন!

৫. অশ্বত্থ গাছ:

৫. অশ্বত্থ গাছ:

এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে নিয়মিত অশ্বত্থ গাছের অরাধনা করলে এবং জল দান করলে যে কোনও সমস্যা মিটে যেতে সময় লাগে না। সেই সঙ্গে আরও একাধিক উপকার পাওয়া যায়। যেমন ধরুন- বৈবাহিক জীবন সুকে-শান্তিতে কাটে, মনের মতো জীবনসঙ্গীর খোঁজ মেলে, বাবা-মা হোয়ার স্বপ্ন পূরণ হয়, এবং পরিবারে সুখ-সমৃদ্ধির ছোঁয়া লাগে। তবে এখানেই শেষ নয়, জ্যোতিষ বিশেষজ্ঞদের মতে অশ্বত্থ গাছের পুজো করলে জন্ম কুষ্টিতে বৃহস্পতি গ্রহের অবস্থান খুব শক্তিশালী হয়ে ওঠে। ফলে অর্থনৈতিক উন্নতি ঘটতে যেমন সময় লাগে না, তেমনি টাকা-পয়সা সংক্রান্ত ঝামেলা মিটে যেতেও সময় লাগে না। শুধু তাই নয়, আগামী সময় বৃহস্পতি গ্রহের খারাপ সময় প্রভাব পরার আশঙ্কাও হ্রাস পায়।

জ্যোতিষশাস্ত্র মতে এই গাছগুলির পুজো করলে নানাবিধ সমস্যা মিটে যেতে একেবারেই সময় লাগে না!

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here