মূল Health (বাংলা স্বাস্থ্য টিপস) রোদে পোড়া চামড়া? সানট্যান দূর করবেন কী করে?

রোদে পোড়া চামড়া? সানট্যান দূর করবেন কী করে?

রোদে পোড়া চামড়া? সানট্যান দূর করবেন কী করে?

এখনের সময় ওয়ার্কিং ওম্যানরা ট্যানের সমস্যায় জেরবার। রোদে বেরোতেই হয় যখন, তখন ত্বকে ট্যান তো পড়বেই। কিন্তু এর থেকে বাঁচবার কিছু সহজ উপায়ও আছে।

ট্যান তোলার জন্য বাজারের ব্র্যান্ডেড প্রোডাক্ট না ব্যবহার করে বাড়িতেই বানিয়ে নিতে পারেন ট্যান তোলার জন্য প্রয়োজনীয় মিশ্রণগুলো। নীচে রইল তেমনই বেশকিছু টোটকা যা বাজারের ব্র্যান্ডেড প্রোডাক্টের মতোই ফল দেয়।

১। দুধ ও হলুদ গুড়ো

১। দুধ ও হলুদ গুড়ো

দুধের সঙ্গে হলুদ গুঁড়ো মিশিয়ে তৈরি করি যায় ট্যান তোলার মিশ্রণ। দুধ যেন এক্ষেত্রে ঠান্ডা হয়। ঠান্ডা ৫০-৬০ মিলিলিটার দুধে হাফ চা চামচ হলুদ মিশিয়ে গুলে নিন। এই মিশ্রণটি মুখে ও হাতে লাগিয়ে অপেক্ষা করুন ১৫-২০ মিনিট। এরপর ধুয়ে নিন , দেখবেন আপনার ত্বকের পুরোনো জেল্লা ফিরে এসেছে। দুধের জলীয় অংশ আপনার ত্বককে ময়শ্চারাইজও করে। ফলে ড্রাই স্কিন যাদের তাদের জন্য এটা ভালো।

২। ময়দা ও দুধের মিশ্রণ

২। ময়দা ও দুধের মিশ্রণ

এটি সাধারণত খুব টাফ মিশ্রণ হয়। ফলে স্কিন থেকে ট্যান তুলতে ভালো কাজ দেয়। অল্প দুধের মধ্যে ময়দা গুলে নিন ভাল করে। ময়দার দলা যেন থেকে না যায়। এবারে হাতে মুখের বিভিন্ন অংশে এটি ব্যবহার করুন দশ পনেরো মিনিট বাদে ধুয়ে ফেলুন।

৪। লেবুর রস ও ইয়োগার্ট

৪। লেবুর রস ও ইয়োগার্ট

সানট্যান তুলতে লেবুর রস ভীষণ কাজে দেয়। শুধু লেবুর রস অথবা লেবুর রসের সঙ্গে ইয়োগার্ট মিশিয়ে নিতে পারেন। কয়েক চামচ লেবুর রস সরাসরি ট্যানড ত্বকে লাগান। অথবা অল্প ইয়োগার্ট মিশিয়ে থকথকে মিশ্রণটিও লাগাতে পারেন ট্যানড ত্বকে। লাগানোর পর দশ থেকে পনেরো মিনিট অপেক্ষা করুন। তারপর জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

৫। মধু ও আনারস

৫। মধু ও আনারস

ট্যান তুলতে মধু খুবই কাজে দেয় কারণ ত্বক সহজে এটি টেনে নেয়। এর সঙ্গে মিশিয়ে নিতে পারেন আনারসের রস। আনারসের টুকরো থেকে চাপ দিয়ে রস বের করে নিন। এরপর তাতে হাফ চামচ মধু মিশিয়ে দিন। মিশ্রণে মধু ভালোমত মিশে যেতে দিন। এরপর সেটি হাতে মুখের ট্যানড ত্বকে লাগান। দশ থেকে পনের মিনিট সময় দিন শুকিয়ে যাওয়ার জন্য। এরপর ধুয়ে ফেলুন জল দিয়ে। ট্যান তোলার সময় মধু ব্যবহার করলে স্কিনের জেল্লা বাড়ে। কিন্তু এতে আর্দ্রতা কমে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। ড্রাই স্কিন যাঁদের, তাঁদের এই পদ্ধতিটি না ব্যবহার করাই ভালো।

৬। দুধের সর আর স্ট্রবেরি

৬। দুধের সর আর স্ট্রবেরি

ক্রিম দুধ গরম করে ফুটিয়ে তার থেকে দুই থেকে তিনক্ষেপে দুধের সর তুলে নিন। এই দুধের সরের সঙ্গে দুতিনটে স্ট্রবেরি পেষ্ট করে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি খুবই থকথকে হয়। এটি ট্যানড ত্বকে লাগিয়ে পঁচিশ থেকে তিরিশ মিনিট অপেক্ষা করুন। তারপর ধুয়ে ফেলুন।

৭। অ্যালোভেরা

৭। অ্যালোভেরা

ট্যান তুলতে অ্যালোভেরার জুড়ি মেলা ভার। অ্যালোভেরার পাতা কেটে তা থেকে জেলটা বার করে নিন। এরপর সেটি ট্যানড ত্বকে লাগিয়ে নিন ভাল করে। এরপর পনেরো কুড়ি মিনিট অপেক্ষা করুন। তারপর জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

রোদে পোড়া চামড়া? সানট্যান দূর করবেন কী করে?

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here