মূল Beauty (বাংলা বিউটি টিপস) সামনেই দোল, রং থেকে ত্বককে বাঁচাবেন কী করে?

সামনেই দোল, রং থেকে ত্বককে বাঁচাবেন কী করে?

সামনেই দোল, রং থেকে ত্বককে বাঁচাবেন কী করে?

সামনেই দোল বা হোলি। রঙের খেলা। যে খেলার মূল্য দিতে হবে আপনার ত্বককে। কারণ হোলির রঙের প্রভাব সবথেকে বেশি পড়বে ত্বকের ওপরে। হয়তো আপনার চোখ, কান বা শরীরের অন্য অংশ আপনি বাঁচিয়ে ফেলতে পারবেন এই রং থেকে। কিন্তু ত্বককে বাঁচানোর কোনও উপায় নেই। তাই আপনাকে মাথায় রাখতে হবে এমন কতগুলো পদ্ধতি যা হোলির মরশুমে ত্বকের ক্ষতি আটকাতে সাহায্য করে।

১। আমান্ড অয়েল

১। আমান্ড অয়েল

হোলির মরশুমে ত্বককে বাঁচাতে পারে আমন্ড অয়েল। আমন্ড অয়েল দিয়ে ভালো করে মুখের ত্বকের মাসাজ করুন। যেদিন হোলি তার কয়েক দিন আগে থেকে শুরু করে দিন এই মাসাজ। প্রতি রাতে শুতে যাওয়ার আগে ভালো করে মাসাজ করুন এই তেল দিয়ে। সকালে উঠে মুখ ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। আমন্ড অয়েলে থাকা ভিটামিন ই ত্বকের উপকার করবে। ত্বকের ওপরে তৈরি করবে এমন এক স্তর, যা রঙের মধ্যে থাকা ক্ষতিকারক রাসায়নিক থেকে রক্ষা করবে আপনার ত্বককে। কানের পিছন দিকে এই তেল অবশ্যই লাগাবেন। কারণ ওই এলাকায় রং জমে ত্বকের মারাত্মক ক্ষতি হয়। কিন্তু আমরা সেটা নিয়ে মাথা ঘামাই না, কারণ কানের পিছনের জায়গাগুলি খোলা অবস্থায় দেখা যায় না। ছোট এক টুকরো তুলো দিয়ে আমন্ড অয়েল প্রতি রাতে কানের পিছনের দিকে লাগান। ওই এলাকার ত্বক ভালো থাকবে।

২। সরষের তেল

২। সরষের তেল

এমনিতে সরষের তেল গায়ে মাখার অনীহা অনেকেরই। কিন্তু দোলের সময় এই তেলের তুলনা নেই। বিশেষ করে যেদিন দোল খেলবেন, সেদিন সকালে সারা গায়ে খুব অল্প পরিমাণে সরষের তেল মেখে নিন। কারণ এতে আপনার ত্বক অতিরিক্ত একটি আস্তরণ পাবে নিজেকে বাঁচানোর জন্য এবং রং খেলার পরে যখন পরিষ্কার করতে যাবেন, তখন সেই কাজ হবে অনেকটাই সহজ।

৩। বরফ

৩। বরফ

দোলের কিছুদিন আগে থেকেই ত্বকের যত্নে ব্যবহার করুন বরফ। ময়েশ্চারাইজার হোক কিংবা সানস্ক্রিন কিংবা এমনি কোনও বডি অয়েল মুখে লাগানোর আগে, ১০ মিনিট মুখ মালিশ করুন বরফ দিয়ে। এতে মুখের ঘর্মগ্রন্থিগুলোর গোড়ায় রক্তচলাচল অনেকটাই বাড়বে, লোমকূপগুলি আরও একটু বেশি খুলে যাবে বরফ ঘষার ফলে। এরপর শুকনো কাপড় দিয়ে মুখ ভালো করে মুছে তারপর ময়েশ্চারাইজার কিংবা সানস্ক্রিন লাগান। এই কাজ করে গেলে দোলের দিন আপনার ত্বক আগের তুলনায় অনেকটাই ভালো থাকবে।

৪। নারকেল তেল

৪। নারকেল তেল

দোলের সময় তো শুধুমাত্র ত্বকে রং লাগবে এমন নয়, মাথাও ভর্তি হয়ে যাবে রঙে। ফলে মাথার ত্বকের যত্ন নেওয়াটাও দায়িত্বের মধ্যে পড়ে। দোলের আগের দিন ভালো করে শ্যাম্পু করে নিন। তারপর মাথা শুকিয়ে নিয়ে নারকেল তেল দিয়ে ভালো করে চুলের গোড়া মাসাজ করুন। এতে চুলের গোড়া যেমন পুষ্টি পাবে, তেমনই মাথায় একটা আস্তরণ তৈরি হয়ে যাবে রং থেকে বাঁচার জন্য। পরে যখন তার ওপরে দোলের রং পড়বে, সেই রং শ্যাম্পু করে ধোয়াটাও সহজ হয়ে যাবে নারকেল তেলের কারণে।

৫। গোলাপ জল

৫। গোলাপ জল

রং খেলার আগে শুধুমাত্র সাবধান হলে চলবে না। রং খেলা হয়ে যাওয়ার পরেও নিজের ত্বকের যত্ন নেওয়ার জন্য অনেক কিছু করতে হবে। বিশেষত রং খেলার হয়ে গেলে সাবান দিয়ে সেই রং ধুয়ে ফেলার পর ত্বক হয়ে যায় প্রচন্ড শুষ্ক। সেই ত্বকের যত্ন নেওয়াটা তখন খুবই দরকারি। সাবান দিয়ে ত্বক ভালো করে ধুয়ে নেওয়ার পরে অল্প গোলাপ জল দিয়ে শরীর ধুয়ে নিতে পারেন। এতে ত্বকের বড়ই উপকার হবে। শুধুমাত্র ত্বকই নয়, চোখের ওপরে কয়েক ফোঁটা গোলাপ জল দিয়ে চোখ বন্ধ করে বিশ্রাম নিতে পারেন। এতে চোখের আরাম হবে। চোখের চামড়ার উপকার হবে।

৬। নেলপেইন্ট

৬। নেলপেইন্ট

ত্বক, চুল, চোখ এসবের যত্নের পাশাপাশি আপনাকে নিতে হবে শরীরের আরও একটি অংশের যত্ন। সেটি হল আপনার হাতের নখ। কারণ দোলের সময় নখের কোণে রং ঢুকে যায়। যা সেখানে দীর্ঘদিন ধরে আটকে থাকে। ফলে নখ দেখতে খারাপ লাগে, এমনকী তা থেকে অ্যালার্জি জাতীয় সমস্যাও হতে পারে। এই সমস্যা থেকে বাঁচতে দোলের আগে আপনি নখে লাগিয়ে নিতে পারেন নেলপেইন্ট বা নেল প্রোটেক্টর। দেখতে সুন্দর এই পেইন্ট বা প্রোটেক্টর আপনার নখকে দোলের রং থেকে বাঁচাতে সাহায্য করবে।

সামনেই দোল, রং থেকে ত্বককে বাঁচাবেন কী করে?

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here